বিজ্ঞান বিষয়ে আর্টিকেল লিখে জিতে নিন পুরষ্কার

বিজ্ঞান বিষয়ে আর্টিকেল লিখে জিতে নিন পুরষ্কার





সবাইকে লাইসিয়াম গণিত ও বিজ্ঞান সংঘে`র ওয়েবসাইটে স্বাগতম। আমাদের অনেকের মাঝেই লেখক সত্ত্বা বিদ্যমান। কিন্তু উপযুক্ত প্লাটফর্মের অভাবে সেটা অপ্রকাশিতই থেকে যায়। সকলে জেনে খুশি হবেন যে, আমাদের এই ওয়েবসাইট এখন সকলের জন্য উন্মুক্ত। আজ থেকে সবাই আমাদের ওয়েবসাইটে লিখতে পারবেন। লেখা প্রকাশিত হবে আপনার নিজের নামেই। আর সেই সাথে জিতে নিতে পারবেন একটি আকর্ষণীয় পুরস্কার।

প্রথমেই বলে রাখি আমাদের ওয়েবসাইট সম্পূর্ণ অলাভজনক একটি সাইট। প্রতি মাসে প্রকাশিত লেখার মধ্যে থেকে সেরা লেখক নির্বাচন করা হবে এবং তার জন্য থাকবে আকষর্ণীয় পুরষ্কার। আপনি যত ইচ্ছা লেখা পোস্ট করতে পারবেন তবে সেটা প্রকাশিত হলেই কেবলমাত্র পুরষ্কারের জন্য বিবেচিত হবে৷ অপ্রকাশিত লেখাকে পুরষ্কারের আওতায় আনা হবে না।

সেরা লেখা নির্বাচনের ক্ষেত্রে আমরা পোস্টের মোট ভিউ ও শেয়ারকে বেশি প্রাধান্য দিব।এক্ষেত্রে যার পোস্ট বেশি শেয়ার ও ভিউ হবে তার জয়ী হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি থাকবে

কী কী বিষয়ে লেখা যাবে

লেখা হতে হবে সম্পূর্ণ বিজ্ঞান ও গণিতের ওপর। এর বাইরের কোনো লেখা প্রকাশিত হবে না।
বিজ্ঞানের নতুন নতুন আবিষ্কার ও আবিষ্কারের ইতিহাস ছাড়াও যাবতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির যা রয়েছে সব বিষয়ের ওপর লিখতে পারবেন।এক কথায় বলতে গেলে আমাদের সাইটটি হবে এক বিজ্ঞানের পাঠশালা; তথ্যের আড়ৎ।লেখার ক্ষেত্রে কোনো কপি করা যাবে না। সম্পূর্ণ নিজের ভাষায় নিজের মতো করে লিখতে হবে। লেখা হতে হবে ইউনিক ও তথ্য সমৃদ্ধ।

লেখার জন্য আপনার যা যা লাগবে-

  • ইংরেজী পড়ে বোঝা ও বাংলায় গুছিয়ে লেখার যোগ্যতা
  • অভ্র বা ইউনিকোডে লিখতে পারা
  • ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার (স্মার্টফোন হলেও চলবে)

নোট-1: আমাদের ওয়েবসাইটের ফন্ট ইউনিকোড, সুতরাং লিখতে হবে ইউনিকোডে, বিজয় দিয়ে লিখলে হবে না। আপনি যদি একান্তই ইউনিকোডে না লিখতে পারেন, তবে বিজয় দিয়ে লিখে ইউনিকোডে কনভার্ট করে নিতে পারেন। বানান ভুল না থাকলে আমাদের কোন সমস্যা নেই।

নোট-2: নিজের লেখা নিজেকেই ছবিসহ সাজিয়ে সাবমিট করতে হবে যা মোবাইলে করা সম্ভব নয়। সুতরাং, কম্পিউটার থাকতে হবে। লেখা প্রকাশের জন্য আপনাকে আমাদের ওয়েবসাইটের পাবলিশিং টুলের অ্যাক্সেস দেয়া হবে। সেখানে আপনি নিজেই লেখা সাবমিট করতে পারবেন। আপনি হয়তো মোবাইলে লিখতে পারবেন, কিন্তু ছবিসহ কিছু কাজ আছে, যেগুলো মোবাইলে করতে পারবেন না। সুতরাং, কম্পিউটার থাকা জরুরী । স্মার্টফোন হলেও চলবে তবে সেক্ষেত্রে ভুলত্রুটির দিকে বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে।

লেখার জন্য বিভিন্ন ম্যাগাজিন ও পেপার এর সাহায্য নিতে পারেন। তাছাড়া বিভিন্ন ইংরেজি ওয়েবসাইটে নিয়মিত বিজ্ঞান বিষয়ে লেখা প্রকাশিত হয়। সেখান থেকে আইডিয়া নিয়ে লিখতে পারবেন।

আর্টিকেল রাইটিং গাইডলাইন

আমাদের ওয়েবসাইটে কী লিখবেন আর লেখার জন্য কোথা থেকে আইডিয়া পাবেন, সে-সব সম্পর্কে বিস্তারিত জেনেছেন। এবার জানুন কিভাবে লিখবেন মানে লেখার নিয়ম-কানুন সম্পর্কে আইডিয়া নিয়ে রাখুন। লেখার জন্য  বড় ধরণের কোন নিয়ম-কানুন নেই, কিছু ছোট-খাট নিয়ম রয়েছে যা আপনাকে অবশ্যই মেনে চলতে হবে। এ-সব নিয়ম না মেনে লিখলে লেখা পাবলিশ করা হবে না।

লেখায় শব্দ সংখ্যা হতে হবে নূন্যতম ৫০০ শব্দ এবং সর্বোচ্চ ১৫০০ শব্দ।

লেখার জন্য একটা টাইটেল ঠিক করুন, এবার একটা কি-ওয়ার্ড বাছাই করুন। কি-ওয়ার্ড হচ্ছে সম্ভাব্য সার্চ টার্ম। মানুষ কোন কিছু খোঁজার জন্য যা লিখে সার্চ দেয় বা যা লিখে সার্চ দিতে পারে, সেটাই কি-ওয়ার্ড।

উদাহরণ হিসেবে আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত কয়েকটা লেখার টাইটেল এবং কি-ওয়ার্ড উল্লেখ করা হল-

টাইটেল আর কি-ওয়ার্ড ঠিক করার পর লেখা শুরু করুন। প্রতিটি লেখারই ৩টি অংশ থাকবে।

  • ভূমিকা
  • মূল বিষয়
  • উপসংহার

ভূমিকাটা আপনি ২ থেকে ৫ প্যারার মধ্যে শেষ করতে পারেন। প্রথম প্যারায় অবশ্যই কি-ওয়ার্ড রাখবেন। আর ভূমিকাতে যত প্যারাই লিখুন না কেন, শেষ প্যারার আগে কি-ওয়ার্ডটি আবার দিন। এই কি-ওয়ার্ডটিকে আমরা সাব-হেডিং (হেডিং টু) হিসেবে ব্যবহার করবো।

তাহলে, ভূমিকার ভেতরে কি-ওয়ার্ড থাকছে ২ বার। মাঝখানে (মূল বিষয়) সম্ভব হলে আরো ১/২বার কি-ওয়ার্ড রাখুন। সবশেষে, উপসংহার লিখুন আর উপসংহারে অবশ্যই আরেকবার কি-ওয়ার্ড রাখুন।



এই হচ্ছে লেখার ফরমেট, খুবই সিম্পল। আরো ক্লিয়ার হওয়ার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের কিছু আর্টিকেল পড়ে নিন। দেখুন, প্রত্যেকটা আর্টিকেল একই ফরমেটে লেখা হয়েছে। ভূমিকার প্রথম প্যারাগ্রাফে কি-ওয়ার্ড, শেষ প্যারার আগে আরেকবার কি-ওয়ার্ড, মূল বডিতে ২/১বার কি-ওয়ার্ড আর উপসংহারে আরেকবার কি-ওয়ার্ড।

আর্টিকেল সাবমিট করার জন্য নিচের লিংকে ক্লিক করে আপনার নাম ও ই-মেইল আইডি দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে নিন।

রেজিস্ট্রেশন লিংক

Username: আপনার নাম দিন, ইংরেজীতে।

Email: আপনার ই-মেইল অ্যাড্রেস দিন, যেটি অ্যাক্টিভ আছে।

I’m not a robot: লেখাটার আগে যে বক্সটি দেখছেন, সেটিতে ক্লিক করে ওকে করে নিন ।

সবশেষে Register লেখাটিতে ক্লিক করুন।



এবার আপনার ই-মেইল চেক করুন। নিচের ছবিটিতে প্রথমটির মত একটি ই-মেইল দেখতে পাবেন।

এবার ই-মেইলটি খুলুন, নিচের ছবির মত একটি লিংক দেখতে পাবেন।

নীল রঙের লিংকটিতে ক্লিক করুন অথবা লিংকটা কপি করে ব্রাউজারে পেস্ট করে এন্টার চাপুন। নিচের ছবির মত দেখতে পাবেন।

এখানে একটি পাসওয়ার্ড দিন। পাসওয়ার্ডটি আগের ইউজার নেমের সাথে টুকে রাখুন। সবচেয়ে ভাল হয় আপনি যদি একই ফোল্ডারে একটি নোট প্যাড খুলে নিয়ে সেখানে ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ডটি লিখে রাখেন। যাইহোক, পাসওয়ার্ড দেয়া হয়ে গেলে নিচের Reset Password লেখাটিতে ক্লিক করুন, নিচের ছবির মত দেখতে পাবেন।

আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়েছে। এবার নীল রঙের Log in লেখাটিতে ক্লিক করুন। নিচের ছবির মত লগইন পেজ দেখতে পাবেন।

এবার আপনার ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে I am not a robot লেখাটির বামপাশের ঘরটিতে টিক মার্ক দিয়ে নিচের Log in লেখাটিতে ক্লিক করুন। নিচে দেয়া ছবিটির মতই আপনার ড্যাশবোর্ড দেখতে পাবেন।

আপনি এখন আমাদের ওয়েবসাইটের ড্যাসবোর্ডে আছেন। ড্যাসবোর্ডে কি কি আছে দেখুন, Post, Media, Profile.

Post- আপনার লেখা আর্টিকেল সাবমিট করতে ব্যবহার করবেন।

Media- ইমেজ আপলোড করতে ব্যবহার করবেন।

Profile- আমাদের ওয়েবসাইটে আপনার নাম, ছবি এবং বায়োগ্রাফি দিতে ব্যবহার করবেন।



চলুন, প্রথমেই আপনার প্রোপাইলটি ঠিক করে নেয়া যাক। একবার প্রোপাইল সেট আপ করে নিলে আজীবনের জন্য আপনার কাজ শেষ, যদি না আপনার প্রোপাইল পরিবর্তণের প্রয়োজন হয়।

এখন প্রোপাইলে ক্লিক করুন, নিচের ইমেজটির মত দেখতে পাবেন।

এখানে ৬টি মেইন সেকশন আছে- Personal Options, Name, Contact Info, About Yourself, Account Management, Avatar.

আপনার কাজ Name, About Yourself আর Avatar এ।

প্রথমে Name সেকশনে আসুন। First Name এ আপনার নামের প্রথম অংশ আর Last Name এ আপনার নামের দ্বিতীয় অংশ লিখুন (অবশ্যই বাংলা ইউনিকোডে লিখবেন)। এখানে যে নাম দিবেন সেটিই আমাদের ওয়েবসাইটে আপনার প্রতিটি লেখার নিচে লেখকের নাম হিসেবে শো করবে। আপনার সার্কেলে আপনি যে নামে পরিচিত, সে নামটিই দিন, ছদ্মনাম ব্যবহার না করাই ভাল হবে। কারণ, ভবিষ্যতে অন্য কোথাও লেখার জন্য কিংবা চাকরির ক্ষেত্রে আপনার এই লেখাগুলোকে রেফারেন্স হিসেবে শো করতে পারবেন।

এবার Display name publicly as লেখাটার সামনে যে বক্সটি আছে, সেটির ওপর ক্লিক করুন। বাংলায় যে নামটি লিখেছিলেন, ড্রপ ডাউন থেকে সেটি সিলেক্ট করে দিন। এ সেকশনে আপনার কাজ শেষ।

এবার About Yourself সেকশনে আসুন। Biographical info লেখাটার সামনের বক্সে আপনার সম্পর্কে ২/৩ লাইন লিখুন। যেমন- ‘আমি একজন টেকনোলোজি লাভার। টেকনোলোজি বিষয়ক যে কোন লেখা পড়তে ও লিখতে আমার ভাল লাগে।‘ এ রকম টাইপের ২/৩ লাইন লিখে দিন। এখানে আপনার সম্পর্কে যা লিখবেন তা আমাদের ওয়েবসাইটে আপনার লেখা প্রত্যেকটি আর্টিকেলের নীচে পাঠকরা দেখতে পাবে। সুতরাং, অল্প কথায় সুন্দর করে গুছিয়ে লিখুন।

এবার Avatar সেকশনে আসুন। এখানে আপনার ছবি আপলোড করবেন। এ ছবিটি আপনার প্রতিটি লেখার সঙ্গে শো করবে। Image লেখাটার সামনে Choose File এ ক্লিক করুন। কম্পিউটারের যে ফোল্ডারে আপনার ছবি আছে, সেখান থেকে ছবিটি দেখিয়ে দিন। এবার ডানপাশের Upload লেখাটার ওপর ক্লিক করুন। ব্যস্, আপনার কাজ শেষ, এবার নীচের নীল রঙের উপর Update Profile লেখা বাটনটায় ক্লিক করুন।আপনার প্রোপাইল সেট আপ সম্পন্ন হয়েছে।

এবার আপনার প্রথম লেখাটা পোস্ট করুন। লেখা পোস্ট করবেন কিভাবে তা জানতে নিচের ভিডিও টিউটোরিয়ালটি দেখে নিন।

প্রথম প্রথম আপনার কাছে কিছুটা জটিল মনে হলেও, ২/৩ টা আর্টিকেল পোস্ট করার পরই দেখবেন সবকিছু পানির মত সহজ হয়ে গিয়েছে। শুরুর দিকে বেশি সময় লাগলেও, ধীরে ধীরে সময়টা কমে আসবে। অভ্যস্থ হয়ে গেলে অল্প সময়ের মধ্যেই আর্টিকেল লিখে পোস্ট করে দিতে পারবেন।

লেখাটি অনেক বড় করে লিখতে হয়েছে। কারণ, আমরা আপনাকে একটি পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন দিতে চেয়েছি। তবে, লেখা যত বড়ই হোক, কাজটা অতো বড় নয়, খুবই সিম্পল। একটু মনোযোগ দিয়ে গাইডলাইনটি ফলো করলেই আপনার কাছে সবকিছু ক্লিয়ার হয়ে যাবে।

লেখা পোস্ট করুন। মাস শেষে সকল লেখা থেকে বাছাই করে সেরা লেখা নির্বাচন করে লেখককে পুরস্কৃত করা হবে।

টার্মস্ এন্ড কন্ডিশন: আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের অগ্রগতির জন্য যে কোন সময় যে কোন নিয়ম-কানুন পরিবর্তণ এবং পরিমার্জণ করতে পারবো।

আমাদের ফেসবুক পেইজগ্রুপে জয়েন করতে ক্লিক করুন।

যে কোনো প্রয়োজনে মেসেজ করুন।


Author Image
Faysal Nadim