বিজ্ঞানের পথযাত্রায় সোনার বাংলা

বিজ্ঞানের পথযাত্রায় সোনার বাংলা

লেখক- আরাফাত তন্ময় বাংলাদেশ, বিশাল পৃথিবীর মাঝে ছোট্ট একটি দেশ। যার রয়েছে নিজস্ব সংষ্কৃতি। স্বাধীনতা উত্তর কেটে গেছে প্রায় অর্ধশত বছর, পিছিয়ে নেই কোথাও। হাঁটি হাঁটি পা পা করে সকল জায়গায় জানান দিচ্ছে নিজেদের অবস্থান। দক্ষিন এশিয়ার ছোট এই দেশটিকে এখন সবাই চিনে নেয় নিজেদের বৈশিষ্ট্যে। অপার সম্ভাবনাময় একটি দেশ, যেখানে বসবাসকারীদের অন্তরে লড়াই করে […]

Read More
বহুবাহক জ্যোতির্বিদ্যা: নিউট্রন নক্ষত্রের সংঘর্ষ থেকে বহুকিছু – দীপেন ভট্টাচার্য

বহুবাহক জ্যোতির্বিদ্যা: নিউট্রন নক্ষত্রের সংঘর্ষ থেকে বহুকিছু – দীপেন ভট্টাচার্য

লেখকঃ দীপেন ভট্টাচার্য মহাকর্ষীয় তরঙ্গ ও তড়িৎ-চুম্বকীয় তরঙ্গ যুগপৎ পর্যবেক্ষণ: ২০১৭ সনের ১৭ই অগাস্ট বিজ্ঞানের ইতিহাসে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিন হিয়ে থাকবে। ঐ দিন জ্যোতিঃপদার্থবিদরা একটি উৎস থেকে প্রায় একই সময়ে মহাকর্ষীয় তরঙ্গ ও তড়িৎ-চুম্বকীয় তরঙ্গ পর্যবেক্ষণ করেন। এখানে উৎস মানে হল আকাশের কোনো একটি জায়গা। ঘটনাটি অগাস্ট মাসে ঘটলেও বিজ্ঞানীরা প্রায় দু মাস সময় নেন এটিকে […]

Read More
ফার্মিয়ন কণা ও বাঙালি বিজ্ঞানীর বিশ্ব জয়!

ফার্মিয়ন কণা ও বাঙালি বিজ্ঞানীর বিশ্ব জয়!

ফার্মিয়ন বা অধরা কণা একটি বৈজ্ঞানিক ধারণা। এর অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছেন বাঙালী বিজ্ঞানী জাহিদ হাসান। ভাইল ফার্মিয়ন হলো ফার্মিয়নের একটি উপদল। ১৯২৯ সালে হারম্যান ভাইল এই কণার অস্তিত্বের কথা প্রথম জানিয়েছিলেন, যা ভরবিহীন। মোট তিন ধরনের ফার্মিয়নের মধ্যে ডিরাক ও মায়োরানা নামের বাকি দুই উপদলের ফার্মিয়ন বেশ আগেই আবিষ্কৃত হয়েছে। অধ্যাপক জাহিদ হাসান ও আন্তর্জাতিক […]

Read More
ম্যাওঃ কোয়ান্টাম মেকানিক্স ও শ্রোডিঞ্জারের বিড়ালের সম্পর্ক!

ম্যাওঃ কোয়ান্টাম মেকানিক্স ও শ্রোডিঞ্জারের বিড়ালের সম্পর্ক!

কোয়ান্টাম মেকানিক্সে বিড়াল আসলো এরভিন শ্রোডিঞ্জারের এর কল্যাণে । তাঁর করা এই পরীক্ষণ কে “শ্রোডিঞ্জারের বিড়াল” বলা হয়। আর এভাবেই কোয়ান্টাম মেকানিক্সে বিড়ালের যাত্রা শুরু। “শ্রোডিঞ্জারের বিড়াল” অস্ট্রিয়ান পদার্থবিজ্ঞানী এরভিন শ্রোডিঞ্জারের করা একটি Thought  Experiment যা কোয়ান্টাম সুপারপজিশন  সম্পর্কিত একটি প্যারাডক্স। Copenhagen interpretation এর সাথে দ্বিমত প্রকাশ করার জন্যই তিনি এই সমস্যা উত্থাপন করেছিলেন। ইতিহাস আধুনিক পদার্থবিদ্যার নতুন এক […]

Read More
আলো, বিদ্যুৎ ও চুম্বকের মধ্যে সম্পর্ক!

আলো, বিদ্যুৎ ও চুম্বকের মধ্যে সম্পর্ক!

নিউটনের মহাকর্ষ বলের মতো এখানে দূরক্রিয়ার উপস্থিতি! অর্থাৎ কোনো একটা চার্জের পরিবর্তন ঘটলে আকর্ষণ বা বিকর্ষণ বলের মান কমে যাবে তৎক্ষণাৎ। এটাই কুলম্বের সূত্রের বড় ত্রুটি। এই ত্রুটি ছিল তার চৌম্বক বলের সমীকরণেও। বিদ্যুৎ আকর্ষণ নিয়ে গবেষণা চলল বহুদিন। সেই সঙ্গে গবেষণা চলল সাধারণ চুম্বক নিয়েও। কিন্তু কুলম্বের সূত্রকে ক্রটিমুক্ত করতে পারলেন না কেউ-ই। হ্যান্স […]

Read More
মহাবিশ্বের মহাবিস্ময়ঃ ব্ল্যাকহোল

মহাবিশ্বের মহাবিস্ময়ঃ ব্ল্যাকহোল

মহাবিশ্বের মহাবিস্ময় কালো গর্ত ? না ঠিক তা না। মহাবিশ্বের মহাবিস্ময়  হল কৃষ্ণবিবর বা কৃষ্ণ গহ্বর । ব্ল্যাকহোল এর শাব্দিক অর্থ  কালো গর্ত কিন্তু ব্যাবহারিক বা আভিধানিক অর্থ হল কৃষ্ণবিবর বা কৃষ্ণ গহ্বর। মহাকাশের এক অনন্ত সীমা পরিসীমা বিহীন বিস্ময় এই ব্ল্যাকহোল। আইন্সটাইন এর জেনারেল থিওরি অব রিলেটিভিটি অনুসারে, কৃষ্ণগহ্বর বা ব্ল্যাকহোল মহাকাশের এমন একটি বিশেষ স্থান যেখান থেকে কোন কিছু, এমনকি মহাবিশ্বের সবচেয়ে […]

Read More
বাঙালির কোয়ান্টাম যাত্রা ও একজন সত্যেন বোস

বাঙালির কোয়ান্টাম যাত্রা ও একজন সত্যেন বোস

১৯২৪ সাল। মহাবিজ্ঞানী আলবার্ট আইনস্টাইন তখন জার্মানির জুরিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক। একদিন তাঁর কাছে একটা চিঠি আসে। চিঠির সাথে একটা একটা গবেষণাপত্র। প্রেরক তৎকালীন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রিডার সত্যেন্দ্রনাথ বসু। আইনস্টাইন চিঠিটা পড়লেন মন দিয়ে। তাতে একটা অনুরোধ। সাথে যে গবেষণাপত্রটা পাঠিয়েছেন তরুণ বিজ্ঞানী, সেটা জার্মান ভাষায় অুনবাদ করে ছাপানোর ব্যবস্থা করতে হবে শাইটসিফ্রট ফ্যুর ফিজিকে। আইনস্টাইন […]

Read More
টাইম ট্রাভেল বা সময় পরিভ্রমনের আদ্যোপান্ত

টাইম ট্রাভেল বা সময় পরিভ্রমনের আদ্যোপান্ত

বিজ্ঞানে বর্তমান সময়ের বহুল আলোচিত বিষয়গুলোর একটি হলো টাইম ট্রাভেল। আজকের আর্টিকেলটি সেটা নিয়েই। কতটা যুক্তিযুক্ত এই টাইম ট্রাভেল? চলুন বিজ্ঞানের সহায়তায় আলোচনা করা যাক। টাইম ট্রাভেলের কয়েকটি অদ্ভুত কিন্তু ‘সত্য’ ঘটনা! টাইম ট্রাভেল বা সময় পরিভ্রমণ কি আসলেই সম্ভব? পদার্থবিজ্ঞান কী বলে? যদি সম্ভব হয় তবে কীভাবে? আর যদি সম্ভব না হয় তবে কেন […]

Read More
নিউটনের মহাকর্ষ – পর্ব-২

নিউটনের মহাকর্ষ – পর্ব-২

নিউটন মহাকর্ষ বলের জন্য একটা সূত্র দিলেন। সেটা হলো, মহাবিশ্বের প্রতিটি বস্তু পরস্পরকে আকর্ষণ করে। এই আকর্ষণ বলের মান তত বেশি হবে যত বস্তুদুটোর ভর বেশি হবে। যেকোনো একটার ভর বাড়লেও মহাকর্ষ বলের মান বাড়ে। কিন্তু বস্তু দুটোর মধ্যে দূত্ব যত বাড়ে তাদের মধ্যে মহাকর্ষীয় টান তত কমে। এই কমা আবার সহজ-সরল ভাবে কমা নয়, […]

Read More
নিউটনের মহাকর্ষ – পর্ব-১

নিউটনের মহাকর্ষ – পর্ব-১

 ১৬৬৫ সাল। ব্রিটেনে তখন প্লেগের মহামারী। কাতারে কাতারে লোক মরছে। ভয়ার্ত মানুষগুলো আতঙ্কে দিশেহারা। প্রাণভয়ে পালাচ্ছে শহর ছেড়ে। ব্রিটেনের ক্যামব্রিজেও লেগেছে মহামারীর বাতাস। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক তরুণ বিজ্ঞানীও ভীত প্লেগে। ক্যামব্রিজ ছেড়ে চলে গেলেন লিঙ্কনশায়ারের খামারবাড়িতে। সেই গ্রীষ্মটাই মোড় ঘুরিয়ে দেয় পদার্থবিজ্ঞান ইতিহাসের। এটা নিয়ে প্রায় রূপকথার মতো একটা গল্পও চালু হয়েছে মানুষের মুখে মুখে। […]

Read More
নিউটনীয় প্যারাডক্স

নিউটনীয় প্যারাডক্স

নিউটন পড়ন্ত বস্তুর সূত্রগুলো গাণিতিক ব্যাখ্যা দিলেন। আর বললেন, মহার্কষ বলের প্রভাবেই কোনো বস্তু মাটিতে পড়তে বাধ্য হয়। এখানেও তৈরি হলো আরেক ধাঁধা। গ্যালিলিওর পিসার হেলানো মিনারের মতো নিউটনকে নিয়েও একটা গালগল্প রয়েছে। আপেল পড়ার গলস্ন। এই গল্পের ঐতিহাসিক ভিত্তি কেউ নিশ্চিত করতে পারেননি। কিন্তু নিউটনের আপেল বিখ্যাত হয়ে গেছে। একটা উদ্ভট ধাঁধা এসেছিল নিউটনের […]

Read More
আমরা কী আলো দেখতে পাই?

আমরা কী আলো দেখতে পাই?

আলোর কণা ও তরঙ্গ দুই ধর্মই আছে। স্বাভাবিক ভাবেই আমরা আলোর ঝলক যেখানে-সেখানে দেখতে পাই। ওয়েল্ডিং মিস্ত্রি কাজ করছে, সেখান থেকে আলোর ঝলক আসে। কোথাও আগুন জ্বলছে দাও দাও করে, সেখোন থেকেও আলোর ঝলক আসে। বাসা বাড়িতে বিদ্যুতের বাল্ব, হ্যারিকেন—কত কিছুই না আলোর উৎস। এগুলো থেকে কত আলোয় না ঝাঁকে ঝাঁকে এসে আমাদের চোখে আঘাত […]

Read More
বিজ্ঞান বিষয়ে আর্টিকেল লিখে জিতে নিন পুরষ্কার

বিজ্ঞান বিষয়ে আর্টিকেল লিখে জিতে নিন পুরষ্কার

সবাইকে লাইসিয়াম গণিত ও বিজ্ঞান সংঘে`র ওয়েবসাইটে স্বাগতম। আমাদের অনেকের মাঝেই লেখক সত্ত্বা বিদ্যমান। কিন্তু উপযুক্ত প্লাটফর্মের অভাবে সেটা অপ্রকাশিতই থেকে যায়। সকলে জেনে খুশি হবেন যে, আমাদের এই ওয়েবসাইট এখন সকলের জন্য উন্মুক্ত। আজ থেকে সবাই আমাদের ওয়েবসাইটে লিখতে পারবেন। লেখা প্রকাশিত হবে আপনার নিজের নামেই। আর সেই সাথে জিতে নিতে পারবেন একটি আকর্ষণীয় […]

Read More
কল্পবিজ্ঞান : আশ্চর্য পৃথিবী

কল্পবিজ্ঞান : আশ্চর্য পৃথিবী

দুরন্ত বেগে ছুটছে মহাকাশযান পঙ্খিরাজ-১৯৭১। সেকেন্ডে একলক্ষ আশি হাজার কিলোমিটার গতিতে। অথচ দশ মিনিট আগেও ছিল মাত্র আশি হাজার। একটা ব্ল্যাকহোলের কোল ঘেঁষে যওয়ার সময় হঠাৎ গতিটা বেড়ে গেছে। সময়মত ব্ল্যাকহোলের অস্তিত্ব টের পায়নি মহাকাশযানের রেডিও ডিটেক্টর। না পাওয়াই স্বাভাবিক। মানুষের তিন মাত্রার মগজের চিন্তার ফসল ওটা। মহারহস্যের ব্ল্যাকহোলের অস্তিত্ব বুঝতে পারা ওটার জন্য কঠিনই। […]

Read More
কল্পবিজ্ঞান : সাগর তলের আতঙ্ক

কল্পবিজ্ঞান : সাগর তলের আতঙ্ক

শান্ত সাগর। চারদিকে বিস্তীর্ণ জলরাশি। গাঢ় নীল। আকাশটাও পরিষ্কার। সাগর আর আকাশের নীল মিলেমিশে একাকার। মাঝখানে ডিমের কুসুমের মত টলমলে সূর্য। এক ঝাঁক অ্যালবাটার্স ঘুরছে জামিলদের ছোট্ট জাহাজকে ঘিরে। জামিল পায়াচারী করছেন জাহাজের ডেকে। বার বার কম্পাসে চোখ রেখে দেখে নিচ্ছেন তাঁদের বর্তমান অবস্থান। জাহাজ ছুটছে ঘণ্টায় ১৬ নটিক্যাল মাইল বেগে। উদ্দেশ্য গয়াল দ্বীপ। সেণ্ট […]

Read More
আলোর তরঙ্গতত্ত্বঃ থমাস ইয়াংয়ের কালজয়ী দ্বিচির পরীক্ষা

আলোর তরঙ্গতত্ত্বঃ থমাস ইয়াংয়ের কালজয়ী দ্বিচির পরীক্ষা

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বিজ্ঞানী আলোর উপর গবেষণা ও তত্ত্ব প্রদান করেছিলেন। নিউটন ছিলেন আলোর কণাতত্ত্বে বিশ্বাসী। এসম্পর্কে আমার আগের পর্বে জেনেছি। আজকে আমাদের আলোচনার বিষয় আলোর তরঙ্গতত্ত্ব। শুরুর কথা আলো যে এক প্রকার তরঙ্গ এ কথা ১৬৭৮ সালে সর্বপ্রথম বলেন ডাচ বিজ্ঞানী ক্রিশ্চিয়ান হাইগেনস। তিনি বললেন আলো তার উৎস হতে অতি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র তরঙ্গ আকারে […]

Read More
আলোর কণাতত্ত্বঃ স্যার আইজ্যাক নিউটন ও তার প্রিজমের পরীক্ষা

আলোর কণাতত্ত্বঃ স্যার আইজ্যাক নিউটন ও তার প্রিজমের পরীক্ষা

স্যার আইজ্যাক নিউটন। তাকে সর্বকালের সেরা ও প্রভাবশালী বিজ্ঞানী মানা হয়। তিনি তার পরীক্ষালব্ধ গবেষণা,আবিষ্কার ও সমীকরণের জন্য চিরদিন সেরা হয়ে থাকবেন। স্যার আইজ্যাক নিউটন অনেকগুলো বিষয় নিয়ে গবেষণা করেছিলেন। তার মধ্যে একটি হলো আলো বা আলোর কণাতত্ত্বের উপর গবেষণা। আজ আমরা আলোর কণাতত্ত্ব ও স্যার আইজ্যাক নিউটনের প্রিজমের পরীক্ষা সম্পর্কে জানবো। পূর্বে মানুষের ধারণা ছিল সকল আলোর রং […]

Read More